মেনু নির্বাচন করুন

উপজেলার ঐতিহ্য

মুক্তিযুদ্ধে পরশুরামে তুমুল যুদ্ধ হয়েছিল। পরশুরামের পশ্চিম অংশ ১নং এবং পূর্বাংশ ২নং সেক্তরের অধীনে ছিল। ১নংসেক্তরের সেক্তর কমান্ডার ছিলেন রফিকুল ইসলাম এবং ২নং সেক্তরের সেক্তর কমান্ডার ছিলেন মেজর হায়দার। মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিম্নে দেওয়া হলঃ

বেসামরিক শহীদঃ ৭ জন

সেনাবাহীনি শহীদঃ ৭ জন

রাইফেল (বর্তমান বি.জি.বি.) শহীদঃ ২ জন

পুলিশ শহীদঃ ১ জন

পরশুরামের মালিপাথরে ১টি বধ্য ভূমি রয়েছে। ৭ই নভেম্বর পরশুরাম হানাদার মুক্ত হয়েছিল।